আইটি শিক্ষা মেনু

২০১৫ সালের সেরা ১০ টি মোবাইল ফোন

প্রতিনিয়ত নতুন নতুন মডেল ও ফিচার যুক্ত মোবাইল ফোন বাজারে আসছে। এই মুহুর্তে যদি প্রশ্ন করা হয় ২০১৫ সালের সেরা মোবাইল ফোন কোনটি ? অনেকেই হয়ত এক এক ব্রান্ডের এক একটি মোবাইলের নাম বলবেন । আসুন নিজের ধারনাগুলোকে একটু যাচাই করে নেই ।

২০১৫ সালের সেরা ১০ টি মোবাইল ফোন

১০. নেক্সাস ৬
গুগলের এই পর্যন্ত সেরা মোবাইলফোন এবং সবচেয়ে বড় মোবাইল ফোন ও নেক্সাস ৬। কিউএইচডি এবং সুপার চার্জারযুক্ত এই ফোন সেরা মোবাইল ফোনের তালিকায় ১০ নং এ স্থান পেয়েছে। দামেও তুলানামুলক সস্থা এই ফোনটি । বাংলাদেশের বাজারে এর মুল্য ৩৫০০০ থেকে ৪০০০০ হাজার টাকা । নেক্সাস ৬ এ যা যা থাকছে

অপারেটিং সিস্টেম: অ্যান্ড্রয়েড ৫
স্ক্রিন সাইজ: ৫.৯৬ ইঞ্চি
রেজুলেশন : এক্স ১৪৪০x২৫৬০
র‌্যাম: ৩ জিবি
মেমোরী : ৩২জিবি বা ৬৪ জিবি
ব্যাটারি : ৩২২০ মি.অ্যাম্পিয়ার
ক্যামেরা : ১৩ মেগা পিক্সেল
সামনের ক্যামেরা : ২ মেগা পিক্সেল

৯. ওয়ানপ্লাস ২

নীরব হত্যাকারীর তালিকায় রয়েছে ওয়ানপ্লাস ২। স্বল্পদাম ও অন্যান্য ফিচারের কারনে ওয়ানপ্লাস ২০১৪ সালেও সেরা ১০ তালিকায় স্থান পেয়েছিল। ওয়ানপ্লাস পুর্বের কিছু সমস্যার সমাধান করে এবং নতুন কিছু ফিচার যোগ করার মাধ্যমে তৈরী করে ওয়ানপ্লাস ২। বাংলাদেশের বাজারে মুল্য ২৭০০০ থেকে ৩২ হাজার টাকার মধ্যে। তবে মাইক্রোএসডি কার্ডের সুবিধা না থাকায় অনেকেই পছন্দ করেন না । এছাড়া এই মোবাইলের আর একটি সমস্যা শোনা যায় তা হচ্ছে খুব দ্রুত তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাওয়া।

অপারেটিং সিস্টেম : ৫.১ অ্যান্ড্রয়েড
স্ক্রিন সাইজ : ৫.৫ ইঞ্চি
রেজোলিউশন : ১৯২০ x ১০৮০
র‌্যাম : ৩জিবি বা ৪ গিগাবাইটের
মেমোরী : ১৬ জিবি / ৬৪ জিবিGB
ব্যাটারি : ৩৩০০ মি. অ্যাম্পিয়ার
রিয়ার ক্যামেরা : ১৩ মেগাপিক্সেল
সামনের ক্যামেরা : ৫ মেগাপিক্সেল

৮. এইচটিসি ওয়ান এম ৯

৫ তারকা মানের ফোন এইচটিসি। সবচেয়ে সুন্দর ফোনগুলোর তালিকায় এইচটিসি সবসময়ই একটি স্থান দখল করে রাখে । এইচটিসি বিগত কয়েক বছর ধরে অত্যন্ত প্রভাব নিয়ে সেরাদের তালিকায় স্থান করে নিয়েছে । এই বছরও তার ব্যাতিক্রম নয়। সেরা ফিচারগুলোর মধ্যে অসাধারণ সাউন্ড,ক্যামেরা ইত্যাদি সবকিছুই বিদ্যামান এইচটিসি মোবাইলে। তবে কম অ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারির কারনে অনেকেই এইচটিসির সমালোচনা করেন। মুল্য : ৫০০০০ এর অধিক।

অপারেটিং সিস্টেম: ৫.১ অ্যান্ড্রয়েড
স্ক্রিন সাইজ: ৫ ইঞ্চি
রেজোলিউশন: ১৯২০x১০৮০
র‌্যাম: ৩ জিবি
মেমোরি: ৩২ জিবি
ব্যাটারি ২৮৪০ মি.অ্যাম্পিয়ার
ক্যামেরা: ২০.৭ মেগাপিক্সেল
সামনের ক্যামেরা: ৪ মে.পি.

৭. সনি এক্সপেরিয়া জেড৩+
অনন্য পানিরোধী এবং অসাধারণ সকল ফিচারের জন্য এই সেটটি বিখ্যাত। শক্তিশালী প্রসেসর এবং পানিরোধী বৈশিষ্টের কারনে সনি এক্সপেরিয়া জেড৩ জনপ্রিয়। আপনি নিশ্চিন্তে বৃষ্টি বা পুকুরে ছুড়ে মারতে পারবেন। ব্রাভিয়া টেকনোলোজির স্ক্রিন এবং ক্যামেরাও এই সেটের বিশেষ ফিচার। ৩৫০০০ থেকে ৪০০০০ টাকা হচ্ছে এর মুল্যমান।

অপারেটিং সিস্টেম: অ্যান্ড্রয়েড ৫
স্ক্রিন সাইজ: ৫.২ ইঞ্চি
রেজোলিউশন: ১৯২০ X ১০৮০ র‌্যাম: ৩ জিবি
মেমোরি: ৩২ জিবি
ব্যাটারি: ২৯৩০ মি.অ্যাম্পিয়ার
ক্যামেরা: ২০.৭ মেগাপিক্সেল
সামনের ক্যামেরা: ৫.১ মেগাপিক্সেল

ভিডিও ২০১৫ সালের সেরা মোবাইল ফোন গুলোর ফিচারসহ

৬. স্যামসাঙ গ্যালাক্সি এস৬ এজ+
এই মুহুর্তে অনেকের কাছেই স্যামসাঙের এই মোবাইল ফোনটি জনপ্রিয়। এর ক্যামেরা স্ক্রিনের কারনে এই মোবাইল ফোনটি সেরাদের তালিকায় স্থান করে নিয়েছে। তবে দুর্বল ব্যাটারী এবং মাঝে মাঝে স্ক্রিন উত্তপ্ত হয়ে যাওয়া নিয়ে অনেকেই বিরক্ত হন

অপারেটিং সিস্টেম: অ্যান্ড্রয়েড ৫.১
স্ক্রিন সাইজ: ৫.৭ ইঞ্চি
রেজোলিউশন: ১৪৪০ X ২৫৬০
র‌্যাম: ৪ জিবি
মেমোরি: ৩২/৬৪ জিবি
ব্যাটারি: ৩০০০ মি.অ্যাম্পিয়ার
ক্যামেরা: ১৬ মেগাপিক্সেল
পিছনের ক্যামেরা : ৫ মেগাপিক্সেল

৫. আইফোন ৬এস প্রাস
অ্যাপলের আইফোন কেন সেরাদের তালিকায় তা ব্যাখার প্রয়োজন হয় না । এইচডি স্ক্রিন, রঙ, ক্যামেরা অসাধারণ ব্যবহার ইত্যাদির জন্য আইফোন সবসময়ই সেরাদের তালিকায় স্থান পেয়েছে। অ্যাপলের তৈরী এটিকে দ্বিতীয় বৃহত্তম স্ক্রিন ব্যবহার করা হয়েছে।

অপারেটিং সিস্টেম: আইওস ৯
স্ক্রিন সাইজ: ৫.৫ ইঞ্চি |
রেজোলিউশন: ১৯২০ x ১০৮০
র‌্যাম: ২জিবি |
মেমোরি ১৬/৩২/১২৮ জিবি
ব্যাটারি: ২৭৫০মিঅ্যাম্পিয়ার
ক্যামেরা: ১২ মেগা পিক্সেল
সামনের ক্যামেরা: 5MP

৪. এলজি জি৪
বিলাসবহুল মোবাইল যা সবাইকে খুশি করতে ব্যাস্ত। ডিজাইন কালার রঙ এবং ক্যামেরা সবকিছূ মিলে এই মোবাইলটি অসাধারণ। এর স্ক্রিনটি এখন পর্যন্ত মার্কেটে সেরা। পিছনে চামড়া দিয়ে তৈরী এই সেটটি প্লাস্টিকের তুলানায় অনেক বেশী সুন্দর দেখায়। ১৬ মেগাপিক্সেলের ল্যাসার শট ক্যামেরা এই সেটটিকে আরও অনন্য করে তুলতে সহায়তা করেছে।

অপারেটিং সিস্টেম: ৫.১ অ্যান্ড্রয়েড
স্ক্রিন সাইজ: ৫.৫ ইঞ্চি
রেজোলিউশন: 1440 2560
র‌্যাম 3GB
মেমোরি: 32GB
ব্যাটারি: অপসারণযোগ্য 3,000 mAh
রিয়ার ক্যামেরা: 16MP
ফ্রন্ট ক্যামেরা: 8MP

৩. আইফোন ৬ এস
আকারে বড় সুন্দর এবং আইফোন ৬ তুলানায় অনেক বেশী গতি সম্পন্ন। আপনি যদি নতুন আইফোন কিনার জন্য প্রস্তুত হয়ে থাকেন তবে আপনার জন্য আইফোন ৬ । ক্যামেরা , ৩ডি টাচ সবকিছু মিলে আইফোনের মধ্যে সেরা ফোন এটি ।

অপারেটিং সিস্টেম: আইওএস ৯
স্ক্রিন সাইজ: ৪.৭ ইঞ্চি
রেজোলিউশন: ১৩৩৪ X ৭৫০
র‌্যাম: ২ জিবি মেমোরি: ১৬ জিবি / ৬৪ জিবি / ১২৮ জিবি
ব্যাটারি: ১৭১৫ মি.অ্যাম্পিয়ার
ক্যামেরা: ১২ মেগাপিক্সেল
সামনের ক্যামেরা: ৫ মেগাপিক্সেল

২. স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৬ এজ

অন্যান্য সকল মোবাইল ফোনের চেয়ে শক্তিশালী, ব্যাতিক্রধর্মী ফিচার অসাধারণ ডিজাইনের জন্য এই মোবাইল ফোনটি সেরাদের তালিকায় ২ নং এ স্থান করে নিয়েছে।

অপারেটিং সিস্টেম: অ্যান্ড্রয়েড ৫
স্ক্রিন সাইজ: ৫.১ ইঞ্চি
রেজোলিউশন: ১৪৪০ X ২৫৬০
র‌্যাম: ৩ জিবি
মেমোরি: ৩২ জিবি / ৬৪ জিবি / ১২৮ জিবি
ব্যাটারি: ২৫৬০ মি.অ্যাম্পিয়ার
ক্যামেরা: ১৬ মেগাপিক্সেল
সামনের ক্যামেরা: ৫ মেগাপিক্সেল

১. ২০১৫ সালের সেরা মোবাইল ফোন

আপনারা নিশ্চয় অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন ২০১৫ সালের সেরা ফোন সম্পর্কে জানার জন্য। আসুন আগে এই ফোনের স্পেসিফিকেশনগুলো জেনে নেই
অপারেটিং সিস্টেম: অ্যান্ড্রয়েড ৫
স্ক্রিন সাইজ: ৫.১ ইঞ্চি
রেজোলিউশন: ১৪৪০ X ২৫৬০
র‌্যাম: ৩ জিবি
মেমোরি: ৩২ জিবি / ৬৪ জিবি / ১২৮ জিবি
ব্যাটারি: ২৫৬০ মি.অ্যাম্পিয়ার
ক্যামেরা: ১৬ মেগাপিক্সেল
সামনের ক্যামেরা: ৫ মেগাপিক্সেল

নিশ্চয়ই পরিচিত মনে হচ্ছে। হুম সেরার তালিকায় ২ নং এ থাকা মোবাইলের স্পেসিফিকেশন এটি। সেরাদের তালিকায় সেরা যেই মোবাইলটি তা হচ্ছে স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৬ । ব্যবহারকারীদের মতামত, অন্যান্য সুযোগ সুবিধা এবং মুল্য তালিকায় সবকিছু বিবেচনায় সেরা মোবাইল হচ্ছে গ্যালাক্সি এস৬

সেরা ক্যামেরার অ্যাপস সম্পর্কে জানতে দেখুন : সেরা ক্যামেরা অ্যাপস

সর্বশেষ কিছু কথা
উপরের সেরা নির্বাচনের তালিকাটি প্রস্তুত করা হয়েছে ব্যবহারকারীদের বিভিন্ন মতামত, রিভিউ , মুল্য তালিকা ইত্যাদির উপর নির্ভর করে । আপনার মোবাইল ফোনটি যদি সেরা তালিকায় না থাকে তার মানে এই নয় যে এটি মোবাইল ফোন হিসাবে ব্যবহার যোগ্য নয়। মোবাইল ফোনের মধ্যে সেরা কোনটি তা ব্যক্তিভেদে বিভিন্ন হতে পারে।

এই বিষয়ে আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন

মেহের নিগার
চলার পথে কখন প্রযুক্তির সাথে যুক্ত হয়েছি জানি না । আইটি শিক্ষায় আমাকে প্রযুক্তির পথে দিয়েছে উৎসাহ আর অনুপ্রেরনা। তাই আইটি শিক্ষার জন্য লিখি। ধন্যবাদ আইটি শিক্ষাকে ।

No comments

Leave a Reply

ইমেইলের মাধ্যমে আমাদের পোষ্ট সমুহ পেতে সাবস্ক্রাইব করুন

ফেইসবুকে আমরা