আইটি শিক্ষা মেনু

ভিডিও মার্কেটিং এর জন্য কিছু টিপস

ইন্টারনেটের গতি বৃদ্ধির সাথে সাথে ভিডিও মার্কেটিং এর গুরুত্ব অনেক বৃদ্ধি পাচ্ছে। ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের এই যুগে সফলতার অন্যতম দিক হয়ে উঠতে পারে ভিডিও এসইও । আপনার ওয়েবসাইটের ট্রাফিক বৃদ্ধির জন্য ভিডিও এসইও এর গুরুত্ব অনন্য।গুগল অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিনসমুহ ভিডিওকে উচ্চ মান সম্পন্ন কন্টেন্ট হিসাবে বিবেচনা করে এবং মনে করা হয় ভিডিও তৈরীর জন্য প্রচুর সময় ব্যায় করা হয়ছে। এই কারণে ভিডিও সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের জন্য অত্যাধিক গুরুত্ববহন করে এবং সাইটের কন্টেন্টের মানকে বৃদ্ধি করে ।
সময় ও পরিশ্রমের কথা বিবেচনা করে আমরা ভিডিও গুলো এমনভাবে তৈরী করবো যেন তা সহজেই ব্যবহারকারীর কাছে পৌছায় এবং আমাদের লক্ষ্য অর্জনে সহায়ক হয়। আপনি সময় এবং পরিশ্রমের মাধ্যমে একটি ভিডিও কন্টেন্ট তৈরী করলেন কিন্ত তা আপনার সাইটের ট্রাফিক বা আপনার বিক্রয়ে কোন অবদান রাখল না এর চেয়ে খারাপ আর কিছু হতে পারে না ।

তাই ভিডিও তৈরীর সাথে সাথেই জেনে নিন ভিডিও কন্টেন্ট মার্কেটিং এর প্রয়োজনীয় টিপস।

ভিডিও মার্কেটিং এর সেরা ৭ টি টিপস

ভিডিও হোষ্টিং
ভিডিও হোষ্ট করার জন্য অবশ্যই প্রথম পছন্দ হওয়া উচিত ইউটিউব। বর্তমান সময়ে সবচেয়ে বেশী জনপ্রিয় ভিডিও হোষ্টিং সাইট হচ্ছে ইউটিউব ।বলা হয় থাকে পৃথিবীর দ্বিতীয় সেরা সার্চ ইঞ্জিন । ইউটিউব বিনোদন মুলক ভিডিও সরবরাহ করার জন্য সেরা কিন্তু এই ভিডিওগুলো যখন সার্চ ইঞ্জিনের ফলাফলে পাওয়া যায় তখন তার গুরত্ব আপনাকে অবশ্যই অন্যভাবে বিবেচনা করতে হবে।ইউটিউব এতটাই গুরুত্ববহন করে যে অনেকেই ভিডিও মার্কেটিং বলতে ইউটিউব মার্কেটিংকেই বুঝেন।

২. কিওয়ার্ড নির্বাচন
যেকোন সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের জন্য কিওয়ার্ড নির্বাচন অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ণ । ভিডিও মার্কেটিং এর জন্য কিওয়ার্ড নির্বাচন করার পর কয়েকটি বিষয় অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে । প্রথমত, আপনার ভিডিও এর ফাইলের নাম। সার্চ ইঞ্জিন সমুহ ফাইলের নামকে গুরুত্বপ্রদান করে এবং ভিডিও এর কন্টেন্ট বুঝার জন্য সার্চ ইঞ্জিন ফাইলের নামকেই গুরুত্বপ্রদান করে।

সুন্দর টাইটেল, ইউটিউবের ক্ষেত্রে সুন্দর টাইটেল ট্রাফিক বৃদ্ধির ক্ষেত্রে গুরুত্ব রাখে । এক্সএমএল সাইটম্যাপে টাইটেলটি ব্যবহার করা হয়। খেয়াল রাখবেন টাইটেলে যেন কিওয়ার্ডটি ব্যবহৃত হয়। কিওয়ার্ড ফিল্ডে আপনার প্রয়োজনীয় কিওয়ার্ডগুলো(শর্ট টেইল ও লংটেইল) ব্যবহারে ভিডিও এর এসইআরপি র‌্যাংকিং বৃদ্ধি পাবে।

৩. কমেন্টস এবং সোশ্যাল শেয়ার
আপনার ভিডিওতে ব্যবহারকারীর কমেন্টস এবং সহজ শেয়ারের জন্য প্রয়োজনীয় অপশন রাখুন। বিভিন্ন সার্ভিস যেখানে আপনার ভিডিও হোষ্ট করবেন সেখানে বেশীরভাগ ক্ষেত্রে অপশন থাকে ।

৪. ট্রান্সক্রিপ্ট
ভিডিও এর সাথে ট্রান্সক্রিপ্ট সরবরাহ করলে সার্চ ইঞ্জিন সহজে ভিডিও কন্টেন্ট সমুহ বুজতে পারে এবং সার্চ ফলাফলে অত্যধিক গুরুত্ব প্রদান করে। আর ব্যবহারকারী সহজে বুঝতে পারে বলে সার্চ ইঞ্জিন আরও বেশী গুরুত্ব প্রদান করে।

৫. ভিডিও এক্সএমএল সাইটম্যাপ
অন্যান্য সাধারণ সাইটম্যাপের মত ভিডিও এক্সএমএল সাইটম্যাপ ভিডিও কন্টেন্টকে সহজে সার্চ ইঞ্জিনের উপযোগী করে। ভিডিও কন্টেন্ট সাইটম্যাপ সার্চ ইঞ্জিনকে নিদির্ষ্ট ভিডিও এর লিষ্ট প্রকাশ করে এবং সঠিকভাবে ইনডেক্স করতে সহায়তা করে।

৬. জিও ট্যাগিং এবং গুগল প্লাসের ব্যবহার
আপনি যদি ভিডিও ইউটিউবে হোষ্ট করেন তবে তবে নিদির্ষ্ট এলাকাভিত্তিক ভিডিও ট্যাগ করুন। ভিডিওটি কোন জায়গায় ধারণ করা হয়েছ তো নিদির্ষ্ট দ্রাঘিমা এবং অক্ষাংশের মাধ্যমে প্রকাশ করুন। ইউটিউব চ্যানেলটি গুগল প্লাস পেজের সাথে মার্জ করুন যাতে খবে সহজে তা শেয়ার করা যায়।

৭. লিংক বিল্ডিং
বিভিন্ন ব্লগপোষ্ট, সাইটে ইউটিউব ভিডিও এর লিংক যুক্ত করুন । সবচেয়ে ভাল হচ্ছে আপনি সোশ্যাল নেটওয়ার্ক শেয়ারিং এর মাধ্যমে আপনার লিংক বিল্ডিং শুরু করুন। মনে রাখবেন ,এসইও এর ক্ষেত্রে লিংক বিল্ডিং অনেক গুরু্ত্বপুর্ণ ফ্যাক্টর কিন্তু অপ্রাঙ্গিক লিংক এসইও এর জন্য ঋনাত্নক প্রভাব তৈরী করে ।

মেহের নিগার
চলার পথে কখন প্রযুক্তির সাথে যুক্ত হয়েছি জানি না । আইটি শিক্ষায় আমাকে প্রযুক্তির পথে দিয়েছে উৎসাহ আর অনুপ্রেরনা। তাই আইটি শিক্ষার জন্য লিখি। ধন্যবাদ আইটি শিক্ষাকে ।

No comments

Leave a Reply

ইমেইলের মাধ্যমে আমাদের পোষ্ট সমুহ পেতে সাবস্ক্রাইব করুন

ফেইসবুকে আমরা